আমার ‘ডাক’ উগো মৃদঙ্গ নাগই

আজিকালি আমার ‘ডাক’ উগরে মৃদঙ্গ বুলিয়া মাতানির টেন্ডেন্সি আহান দেহিয়ার। হুত্তুমে আমার ডাক উগো মৃদঙ্গ নাগই। মৃদঙ্গ ওয়াহি এগো আহেসেতা সংস্কৃত ‘মৃৎ’ বারো ‘আঙ্গ’ ওয়াহি দ্বগিত্ত। মৃৎ মানে মাটি (clay) বারো আঙ্গ অইলতা শরীর বা দেহাগো(body)। হানতে যে বাদ্যযন্ত্রগোর দেহাগো মাটিলো হঙকরা উগোর নাঙহান মৃদঙ্গ ( ফটোগো চেইক)। আমর ডাক বারো পুঙ এগোতে তঙাল বাদ্যযন্ত্র আগো। এগো অরিজিন ডেভেলপমেন্টর য়ারিয়ৌ তঙাল। মৃদঙ্গর উৎপত্তি দক্ষিন ভারতে। আমার ডাক উগোর উৎপত্তি মণিপুরর মাটিত। আমার ডাক এগো পুরাপুরি কাঠ/রুকলো হঙকরতারা; মুখাহানি বারো ছানিহানাত চামড়া বেবার করকারা। এগোরে মৃদঙ্গ, ঢাক বার ঢোল মাতানিয়ৌ চুম নেই। ১৫৪ খ্রীস্টাব্দৎ মহারাজ খুইয়ল তম্পক ওরফে ক্ষেমচন্দ্রর হাকতাকে আমার ডাক বা পুঙ এগোর প্রচলন অসিল বুলিয়া তথ্য পেয়ার। পুঙ মানে ড্রাম বা ডাক। পুঙেত্ত পুঙ চলোম(pung cholom)। আগে পুঙ এগো মানু ডাহানির কাজে বেবার অইল। যুদ্ধ বারো শত্রু আক্রমন অইলে ডাকগো বাজিয়া মানু ডাকলা। জন্তু জানোয়াররে ডর দেহেইতেই বেবার অইল। মণিপুরর তাঙখুল বারো কাবুই জাতির মানুরাং এবাকাউ প্রচলন এতা দেহিয়ার। পিসে পিসেদে সাংস্কৃতিক ডেভেলপমেন্টর লগে ডাকর প্রচলন উহান মাত্রা পাসিল বিশেষ করিয়া অস্টাদশ শতকে বৈষ্ণব ধর্মর প্রভাবে।

মৃদঙ্গর লগে মণিপুরি পুঙ বা ডাকগর শব্দ বারে সংগীত ব্যঞ্জনার নিয়াম পার্থক্য। ডাকর পুঙলল উগো মৃগঙ্গত্ত নিকালানি সম্ভব নেই। মৃদঙ্গর পরিবর্তিত রূপহান অইলতা খোল। মাটির বদলে কাঠলো হংকরতারা। খোল এগোর চল বাঙালি বারো অসমীয়ারাং নিয়াম। খোলগর লগেউ আমার ডাকগর নিয়াম পার্থক্য। খোলগর বাঙেদের বারা উহান বাতেদের দ্বিগুন। আমার ডাকরতা দ্বিয়বারার আয়তন প্রায় সমান। ইমে গজে দিতারা রাসায়নিক প্রলেপ উহান কমবেশ অর।

বাহ্যিক মিলউহান দেহিয়া নানান ভারতীয় বার ইউরোপিয়ান গবেষকে মণিপুরি বাদ্যযন্ত্র এগোরে ভুলভাবে মৃদঙ্গ মাতিয়া গেসিগা। আমিয়ৌ আগপিছ না খালকরিয়া এহান গ্রহন করেসি। এবাকাতে নিপাতনে সিদ্ধ মাতিয়া চারিয়বেদে ভুল অহানই চুমহান বুলিয়া চলেছে। সংস্কৃতির বাণিজ্যিকরন বা বাজার অর্থনীতির সম্পর্ক আহানৌ এপেইত পেয়ার। কিন্তু আমার একদম নিজস্ব বাদ্যযন্ত্র এগোরে মানুরগো বুলিয়া মাতানি এহানতে থক নার সাৎ। আমিতে প্রায় চারি লিশিঙর গজে অনার্য ওয়াহি আমার ঠারে বেবার করিয়ার, হানতে ‘পুঙ’ শব্দ এগো ঠারহানাত বরেইলে মহাভারতহান অশুদ্ধ অইতইথাং?

শ্রীরাধা বারো ব্ষ্ণৈবধর্ম

১.
জন্মসূত্রে বৈষ্ণবগো অইলেউ মি অমাটিক কৃষ্ণভক্তগো নাগই। মি মুলত শ্রীরাধার ভক্তগো। এহানর মুলে কৃতজ্ঞতার য়ারি আহান আসে। য়ারি অহান হাবি বৈষ্ণবে পাহুরতারা।

২.
শ্রীরাধাই চিনুয়াসেগো কৃষ্ণরে। রাধা নেইলে কৃষ্ণরে আমি নাউ চিনলাং অইস। রাধা এগ কুংগ? মহাভারত, রামায়ণ, ভাগবৎ পুরাণ কুরাঙৌ আমি রাধার নাংহান নাপেয়ার। কৃষ্ণর লগে রাধার যুগলরূপ পেয়ারতা দ্বাদশ শতকর বৈষ্ণব কবি জয়দেব গিরকর গীতগোবিন্দৎ বারো চন্ডিদাসর শ্রীকৃষ্ণকীর্ত্তনে। বৈষ্ণব কবির কল্পনাৎতো জরম অসে রাধা এগোই পিসে পিসে মিথলজির কৃষ্ণরে জনপ্রিয় করিয়া গেসেগো ভক্তি বারো প্রেমর টানলো। রাধার লগে কৃষ্ণর প্রনয়কাহিনী উহান সাহিত্যত কতিহান চর্চিত অসে হিসাব নিকাশ নেই। এসাদে শ্রীরাধা এগো একাধারে কুলবধু, প্রেমিকা, কৃষ্ণভক্ত, নিঙলর আদি চিরন্তন রূপহান অয়া মানুর থতাৎতো থতাৎ বিবর্তিত অসে। শ্রীচৈতন্যদেবে মাতের, মোর অন্তরে রাধা, বহিরাঙ্গে কৃষ্ণ। নিয়াম লু কথাহান। ‘মোর অন্তরে রাধা’ – মানে, মোর অন্তরে নিঙলর অনুভূতি। নিঙলর অনুভূতি অহানই শিল্পর ভিত্তিহান। বাংলা এলা-নাছার ভিত্তিহান চৈতন্যদেবে হঙকরেদিয়া গেসেগা।

৩.
বৈষ্ণবদর্শনে রাধারে জীবাত্মাগর প্রতীকগো বুলিয়া নিঙকরানি অর। কৃষ্ণ বারো পরমাত্মাগো। পরমাত্মার লগে তিলনারকা জীবাত্মাগোর আকুলতা অহানই শ্রীরাধার প্রণয়যন্ত্রনাহান অয়া নিকুলেসে। অহানে রাস রাখুয়ালে আমি হাবি যিয়ারগাতা রাধা অলয়া। রাধার সাদে এলা দিয়ার, রাধার সাদে বিবুলা অয়ার, কাদিয়ার।

*পেইন্টিং এগো শ্রীশক্তিকুমার সিংহ গিরকে ‘পৌরি পত্রিকা’র মলাটহার কা করেসিলগো

ঢাকা   ১৪.০৯.২০১৩

দলাদলি

১.
দলাদলির দরকার আছে। আমার মালঠেপ কেন্দ্রিক সামাজিক সিস্টেম এহান টিকেয়া থইতে দলাদলির বিকল্প ব্যবস্থা নেই। দলাদল নেইলে কুনগৌ মালঠেপে নাও যিতাইগা। হাবি গরে বয়া নিজর নিজর কার্ম করতাই। জিতাজিতি বারো পদফাম দখল করানির প্রতিযোগিতা নেয়ইলে ঐতিহ্যিক বারো সাংস্কৃতিক চর্চা ঔতাউ মাঙয়া যিতইগা। হানতে দলাদল চলক। আগো গজেদে কাইলে উগরে যেনতেন প্রকারে তলেদে লামাদেনির হৎনা করানি এহানতে আমার জাতীয় চরিত্রহান। এহান গোষ্ঠি বা পরিবারর বিতরেত্তউ অইতে পারে, এহানরকা দলাদলরে দায়ি করানি থকনেই।

২.
গাঙগরে আমার দলাদল করতারা বুজন গিরীগিথানীরতা মেইনস্ট্রীম পলিটিক্সর লগে কুনো যোগাযোগ নেই। হানতে রাষ্ট্রর শোষন-বঞ্চনা, রাষ্ট্র আহার বিতরে থায়াউ নিজর সামাজিক রাজনৈতিক চেতনা, গোষ্ঠিগত অধিকারর য়ারি ঔতা তানুর কানে নাউ থুঙর। নিজর গাঙ উহানরেই তানু রাষ্ট্রহান নিংকরতারা। নিতান্ত বুরবক মানু কতগোই নিজর কামদুম বেলেয়া তানুর নিজর অজান্তে কৌমগোষ্ঠি আহার সামাজিক-সাংস্কৃতিক প্রক্রিয়ার চাকাউগো সচল করিয়া থনার দ্বায়িত্ব নেসিগা এহান পজিটিভলি নেনাই হবা। তানুর কতিহান ক্ষমতা ঔহানতে ইমে হারপেয়ারনাই। মুক্তবাজার অর্থনীতির যুগে মালঠেপেত্ত বা শিংলুপেত্ত বাদ অনা অহান ব্যক্তিবিশেষরকা এমাটিক ডাঙর ক্ষতিকারকহান নাগই। আরাকবেদে চেইলে প্রতিষ্ঠান ঔতাই মানুর শত্রু, মুক্তির পথর বাঁধা।

৩.
বরং হেরেদে জাতহানরে বারার মানুরাং বেসিয়া নিজর স্বার্থসিদ্ধি করাত থেঙসি গিরি ঔতার বারাদে মিল্লেঙ দেনা থক। জাতহানর মুরগৎ নুন থয়া বরই খানা এহান হাবিত্ত বিপজ্জনকহান।

ঢাকা  ১৯-০৭-২০১৩

ধর্মকানা মানুর য়ারি

১.
ধর্মান্ধ বা ধর্মকানা মানু এতা সমাজ সভ্যতার বিকাশর পথে যুগে যুগে বাধা অসি। নানান সময়ে আমি এহার প্রমাণ দেহিয়ার। বাংলাদেশর বগুড়া জিলাত গেলগা কালি (০৩.০৩.২০১৩) জোনাকগর বিতরে দেলোয়ার হোসেন সাঈদী বুলিয়া মোল্লা আগর মেইথংহান দেহেসি উনিয়া উজ্জার নাজ্জার অইল। সাঈদী মোল্লা এগোরে ১৯৭১ সালে গণহত্যা ধর্ষনরকা আদালতে ফাঁসির রায় দেসিগো। তারে সমর্থন করতারা ধর্মান্ধ জামাতে ইসলামি দল এহানে। কালি দেশর নানান জাগার মসজিদেত্ত জোনাকগত সাইদী নিকুলেসে উনিয়া ঘোষনা দিয়া ধর্মান্ধ মসরমানউতারে উত্তেজিত করলা। উত্তেজিত মানু ঔতা সড়কে লামিয়া ভাঙচুর, জ্বি লাগিয়া, লুটপাট করিয়া লইতেগা পুলিশর লগে লাগিয়া লামসাম ১০গো ইমে জাগাত গুলি খেয়া মরলা। এতার আগে রায় উহার জেরলো নানান চিটাগাংসহ নানান লয়াত হিন্দুর মন্দির গরবাড়ি জ্বালাদিয়া উচ্ছেদ করলা। এবাকা পেয়া পুরা দেশে আহৌর গজে মানু মরলা, পুলিশ মরলা আট নয়গো।

২.
ইতিহাসর বারাদে চেইলেউ ধর্মান্ধতার নিকৃষ্ট উদাহরন আবকসা দেহিয়ার। বর্ণাশ্রম হিন্দুধর্মর নিপীড়নে অতীষ্ঠ অয়া ভারতবর্ষর অন্ত্যজ মানুঔতা যেবাগা বৌদ্ধধর্ম গ্রহন করানি অকরালা উবাকা হিন্দু ঔতায় বৌদ্ধ নিধনে লামেসিলা। রাজা পুষ্যমিত্র (খৃ: পূ: ১৫০) চিংকরিয়া রাজা শশাংক ( ৬৫০ খৃষ্ঠাব্দ)র আমলেত্ত বৌদ্ধ এতা মারানি অকরলা। ৮ম শতাব্দীত শংকরাচার্যর আমলে টানা ১০ বছর বৌদ্ধ এতারে তুপকরে তুপকরে আলেইলা। শংকরাচার্যই মাতেসিল, বৌদ্ধ আগো মারানি নারলে তি কিতার হিন্দুগো? হানতে এসাদে প্রায় এক কোটি বৌদ্ধ নিশ্চিন্হ অইলা। যেতা জিংতা অয়া থাইলা তানু কতগো এশিয়ার মুঙবারাদে পলিয়া নিজরে কালকরিয়া থইলা। কতগো বৃহত্তর হিন্দুফোল্ডে আত্তীকরন অইল। বাকীউতা দলিতা অয়া কোনাকোনসেলেদে ছিতারিয়া থাইলা। বৌদ্ধ তুমনির বাদে বঙ্গর সাহিত্য, সংস্কৃতি বারো জ্ঞানচর্চার ক্ষেত্রত শুণ্যতা দেহাদেসিল। এসাদে শুণ্যতার বিতরে আরবেত্ত মসরমান আয়া হমাসিলাগা। তানু দলিত অন্ত্যজ শ্রেনীর মানুরে টার্গেট করিয়া নিজর ধর্মবিস্তার করেসিলা। পিসেদে হিন্দুধর্মর মানু ঔতারে নানানভাবে উৎপীড়ন করলা। হিন্দু বারো মসরমানর বিতরে আগরে আগই ঘৃনার সংস্কৃতি উহান চুড়ান্ত রূপ পেয়া ১৯৪৭ সালে ধর্মর ভিত্তিলো দেশভাগ অইল।

৩.
হানতে ধর্মান্ধতা এহান ইমে ধর্মে ধর্মে বিরোধ হংকরেদের। ধর্মকানা মানু উতারে লারাদেনা নুঙেই। ইমে ‘নারায়ে তাকবীর’ নাইলে ‘জয় শ্রীরাম’ মাতলে লইল। ভারতর সাদে বিজ্ঞান প্রযুক্তিত উন্নত দেশ আহাত গনেশর মুর্তিগই সেলকম পিয়ের উনিয়া পরল্লেই করলা। বাংলাদেশেউ লেইসাঙর দৌয়ে সেলকম পিতারা উনিয়া গুজব নিকুলেসিল। ধর্মর এরে সেন্টিমেন্ট এহান মানুরাং হবানেই কামে প্রয়োগ করানিরকা জাং তুলিয়া আসি রাজনৈতিক অর্থনৈতিক সুবিধাবাদী শ্রেণীআহানে। মানুর বিতরে ঘৃনা বরাদিয়া উগ্রতা সৃস্টি করানি অকরের ধর্মরেলো নানান কিচ্ছাকাহিনী হংকরিয়া। এসাদে বাবরি মসজিদলো রক্তারক্তি অইল, গুজরাটে মানু আকতায় আকতার লগে সেদাসেদি দিলা।

৪.
ধর্মপালন করিক, ধর্মর দর্শন বারো মানবিক শিক্ষার য়ারিউতা গ্রহন করিক কিন্তু অন্ধ অয়া নাগই।

ঢাকা  ০৪.০৩.২০১২

আমার সমাজর কবি লেখক এতার কপাল

১.
আমার সমাজর কবি লেখক এতার কপালর কিরৌ হবাহান। নিজর ভাত খেয়া, নিজর গাটর রূপা তিংকরিয়া, নিজে দ্বায়িত্ব নিয়া, প্রেসে দাবদা দাবদি করিয়া ছাপেইতারা ঔতা মানুয়ে লনা না মনেইতারা, লইতারা ঔতাও পাকরানি না মনেইতারা। মোবাইলে হারদিন ৫০/১০০ টাকা রিচার্জ করতে সমস্যা নেই, পুজার চান্দা ৫০০ টাকা দিতেউ সমস্যা নেই- লেইরিক আহান লইতে মিহুলগৎ থুক করের। জাতহারনরকা ঠারহানরকা রাতিদিন পরিশ্রম করিয়া সৃষ্টি করতার সাহিত্য উতার কোন মূল্যায়ন নার, বরং করুনার দৃষ্টিলো চেইতারা কুনো কুনোতায়। মানু আগো লেখকগো বুল্লে অগোর সমন্ধে সমাজর ধারনাহান সমসময় নেগেটিভ। বড় বাগরর লেখকগো, লিখালিখি করিয়া করেবেলতই! কবি সাহিত্যিক এতা বপতাই লেইরা হানতে সমাজর ডাঙর থাকে কবি সাহিত্যিকর মর্যাদা নেই, থাইলেউ ঔতার লগে ব্যক্তিস্বার্থ জড়িত থার।

২.
ইমারঠারর লেইরিক আহান ফেরি করাত গেলেগা মাততারা, “তোমার এতা পাকরানির সময় নেই”, “মানুর ঠার পাকরানি হিন”, “হুদ্দা ইমে কবিতা গল্প লিখরাই হানতে, কিসাদে উন্নতি করানি অকরবো অসাদে কথা লিখেই” ইত্যাদি। টিলিভিশনে নাটক সিরিয়াল খেলা চানার লম্বা সময় থার, আমার ঠারর লেইরিক আহান উল্টেয়া চানার সময় নেই। কুনো কুনো মানুরাং নিজর ঠারহান পাকরে নারানি এহান গর্বহান অসে, অথচ বাংলা হিন্দি ইংলিশ পাকরানি টটরানি জানানি এহানে স্ট্যাটাস বাড়ের। বারো সমাজ আহার উন্নতি এহানতে হাবিবারাদে অনা থক, অর্থনৈতিক উন্নতির লগে সামাজিক সাংস্কৃতিক উন্নতি অহানউ দরকারি। সমাজ সংস্কৃতি সভ্যতা হাবির মুলগতে হৌ ভাষা সাহিত্য।

৩.
ট্রানজিশন পিরিয়ড আহান পার কররাং সাৎ আমি। এহাত নানান ভাঙচুর বিনির্মাণ অয়া টিকলেতে টিকলাং নাইলে মিমুৎ অনা ঔহানই আমার ভবিতব্যহান।

ঢাকা  ০৫.১০.২০১২

চিন্তা বারো মননশীলতার জগত

১.
কিয়া হারনেই দিন যারগা মাহেই চিন্তা বারো মননশীলতার জগতেত্ত সমাজ এহান দুরেই অয়া যারগা। বিশেষ করিয়া নুয়া প্রজন্মরাং চিন্তার দৈন্যতা বিষয় এহান প্রকট অয়া দেহাদেসে। আমার তরুন প্রজন্মরাং সামাজিক, বৈশ্বিক, রাজনৈতিক চেতনার কোন চিনৎ আহান নাদেহিয়ার। ফেসবুকে মোর বন্ধু তালিকাৎ ৩০০+ সিংহ/সিনহা আছি। দুগো আ’গ ব্যতিক্রম বাদ দিলে কোনগরাংতো নাদেখলু চিন্তাশীল কথা আহান বা সমাজচেতনা বা রাষ্ট্রচেতনামুলক য়ারি আহান নিকুলতে। তানুর চিন্তা ইমে হিন্দী সিনেমা, খেলাধুলা বা প্রেমপীরিতির য়ারিপরির বিতরে সীমাবদ্ধ। অথচ তানুর সমবয়সী বাঙালি শৌ আগর সমাজচেতনা, সমকালীন রাজনীতি, দর্শন, অর্থনীতি, সাহিত্য, সাংস্কৃতিক জ্ঞান অহান দেখলে আচানক অনা লাগের।

২.
আকেইমাউ খালকরৌরি, কিয়া আমার সমাজর বিতরেউ এসাদে শৌ নাপেয়ারতা? আমার শৌ মেধায় কমসিহান নাগৈ, আমার অভিভাবক এতায় শৌশুমারারে বৈষয়িক বারো চাকুরিমুখী শিক্ষার পাথর আগো চাপাদিয়া তানুর মেধা মননর বিস্তৃতি, ক্রিয়েটিভিটি হাবি ধ্বংস করেইতারা সা’দ।

৩.
আশি/নব্বই দশকে বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরি সমাজে নিবেদিতপ্রান তরুন সমাজকর্মী দাপাআহান নিকুলেসিলা। তানু জ্ঞানচর্চা করলা, লেইরিক লেইসু তামকরলা, চিন্তা চেতনা মননর জগতে বিচরন করলা। আজি প্রাতিষ্ঠানিক ডিগ্রী লয়া আধুনিক প্রযুক্তির সুবিধা লয়াউ খামতলে পড়িয়া থাইলাঙ।

ঢাকা   ৩০.০৯.২০১২

‘আমি মণিপুরি নাগৈ’ উনিয়া মাততারা উতারে..

আহৌ বসরর ভাষা সংগ্রাম, সমাজনিঙপা গিরীগিথানীর তেৎনেই হন্না, ত্যাগ তিতীক্ষা বারো শহীদর রকত – হাবিতা ঝপকো বেলিয়া ‘বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরী’ শব্দবন্ধ এগোত্ত ‘মণিপুরী’ ওয়াহি এগো সেচানির হন্না করতারা মানু ঔতারে মাগানা পরামর্শ আহানঃ

‘মণিপুরী’ ওয়াহি এগো সেচেইতে আপনাগাসিরতা হিনপেয়া ইতিহাস গবেষনা করানি না লাগবো। আমার মেইতেই বেইবুলিয়ে আপনাগাসিরকা গবেষনা-থেসিস এতা বহু আগে করিয়া থুয়া গেসিগা। লেরিকর নাঙ কতহান তলে দেনা অইল –

১. The Meetei and the Bishnupriya : Konsam Kulladhwaja
২. A clarification on Bishnupriya in relation to Manipuris : Ch Manihar Singh
৩. অন্ধের গজদর্শন : AAMSU, শিলচর
৪. Unfolding Truth : Manipuri Sahitya Parishad, Assam
৫. মণিদীপ্ত মণিপুর ও বিষ্ণুপ্রিয়া প্রসংগ- ইতিহাসের দর্পনে দেখা : এ.কে. শেরাম

হানতে লেরিক এতা ইমে খমকরিয়া পাকরিক বারো প্রচার করিক। আপনাগাসিয়ে বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরীর যে নুয়া ইতিহাসহান লেংকরানি মনাসো ঔহান ১০০% এরে লেইরিক এতাত পেইতাউ। থেসিস-থুসিস করিয়া সময় শ্রম না মাংকরিয়া গরে চহাবেইলঙর খেতি আহান করলেউ বালা। থাকাত।

বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরি উইকিত আধুনিক বিজ্ঞানর আর্টিক্যাল

আমার মানুরাং বিজ্ঞানর য়ারি!! কারে দুর্গায় দরলো, কার গরে মাহাদেব নিকুলেসিল, কারাং দৌদুকর নজর লাগসে, কারে কুঙ্গই তাবিজ করলা বার করলা ঔতা আমার বিজ্ঞানর য়ারি। আমি বিজ্ঞান তামকরিয়া পরীক্ষা পাশ করিয়ার কিন্তু লইতেগা অন্ধবিশ্বাস অহানরেই গ্রহন করিয়ার। শিক্ষিতশ্রেনীর বিতরেই প্রবণতা এহান নিয়াম, কারনহান অইলতা আমার শিক্ষাব্যবস্হা এহান বিজ্ঞানমুখি নাগই, বরং মুখস্তমুখি সার্টিফিকেটসর্বস্ব শিক্ষাব্যবস্থাহান যেহান আমার ঔপনিবেশিক গুরু ঔতায় হঙকরেদেসিলা। … সমাজআহার মানু বিজ্ঞানমনস্ক অইলে সমাজহানাৎ ঔহার প্রভাব এমনেউ পড়ের। আমারতা ঔহান অনার সম্ভাবনা এজনমে নাদেহুরি।

আমার ঠারে বিজ্ঞানর গজে ইকরা নেই বুল্লেউ য়াকরের। বিচ্ছিন্নভাবে পত্রিকাৎ বিজ্ঞানর গজে দুহান আহান ইকরা থাইলেউ বিজ্ঞানর মৌলিক বিষয় উতাৎ আমার লেখক সাহিত্যিক গিলরিগিথানীয়ে আ’ত নাদেসি। এরে শূণ্যতা এহান পুরণ করানিরকা বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরি উইকিপিডিয়াত আধুনিক বিজ্ঞান বারো বিজ্ঞানর মৌলিক বিষয়উতার গজে মুল ফাৎকরা ইকরা থনার উদ্যোগ নেসিগা। এপেই উইকিপিডিয়ার স্যাম্পল আহান তুলিয়া দরানি অইল। বিষয়হান বিবর্তন বা বিবর্তনবাদ; জীববিজ্ঞানর নিয়াম গুরুত্বপূর্ণ টপিক আগো। হাবির পাংলাক পেইলে উইকিপিডিয়াৎ বিজ্ঞানবিষয়ক লেখার বারনগো বরা অইতই আশা থয়ার।

বিবর্তনবাদhttps://bpy.wikipedia.org/wiki/বিবর্তন
বিগ ব্যাং: https://bpy.wikipedia.org/wiki/বিগব্যাং

একুশে ফেব্রুয়ারি: ইমারঠারে

২১শে ফেব্রুয়ারি আন্তর্জাতিক ভাষা দিবসে “আমার ভাইয়ের ভাষায় রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি” নাঙকরা এলা এহার পয়লার পদগি ‘চাকমা’ বারো ‘বিষ্ণুপ্রিয়া মণিপুরি’ ঠারে ভাবানুবাদ করিয়া ব্লগে এরাদেসে বাঙালি ব্লগার আগই। তার উদ্যোগ এহানরে থাকাত জানুয়ানির ভাষা নাপাউরি। আজি অনলাইনে অন্য জাতর মানুয়ে আমার ঠারহানরে সম্মান দিতারা এহান দেখলে হারৌ লাগের। সকল মাতৃভাষা বেঁচে থাকুক। ইমার ঠার পুনসি পালক।

লিংক এহানত্ত এলাহানি হুনিক –
http://www.sachalayatan.com/himu/48090

ধনঞ্জয় রাজকুমারর কবিতা আহার অনুবাদ

ধনঞ্জয় রাজকুমারর  কবিতা আহান বাংলাৎ অনুবাদ করলুতা। ফেসবুকে শেয়ার দিয়া চেইতে দেহুরিতা অউহান বাক্কা কতমাউ শেয়ার অসে। বাঙালি কতগয় কবিতা উহান কবিতার গ্রুপ অতাত শেয়ার দেমি। হারৌ আহানউ লাগিল।
দুঃখ/ ধনঞ্জয় রাজকুমার

শূণ্যে একটি শব্দকে বললাম-
যাও, পদ্ম হয়ে ফোটো।
একজন নারীকে বললাম- যাও,
তার পাশে চন্দ্রকলার ভঙিমায় দাঁড়িয়ে থাকো।
মুখে তোমার ঝরে পড়ুক টলটল করা
একবিন্দু অশ্রুজল।
সে ঢেউয়ে স্মৃতির মত তিরতির কাঁপবে
পদ্ম।

হে পদ্ম! তোমার নাম কি?

বিষাদের মধ্যে মুচকি হেসে সে বলে-
আমার নাম- দুঃখ। আমাকে চেননা!
আশৈশব তোমার সখা হয়ে আছি যে।

মুল কবিতাহানঃ

শূণ্যহানাৎ শব্দ আগরে মাৎলু-
যাগা, থামপাল অয়া শাতগা।
নিঙল আগরে মাৎলু- যাগা,
ঔগর লগে চন্দ্রকলার সাদে পারাহান দিয়া উবা অগা।
তোর মেইথংহানাৎ জঙক লিকলিক করের
আহির পানির বিন্দু আগ।
ঔতার ঢউগৎ সাদে নিক্করতে
থামপালগ।

থামপালগ! তোর নাঙহান কিহান?

ঐগে বিষাদর হাদিৎত মুকসিহান দিয়া মাৎল-
মোর নাঙ- দুঃখ। মোরে নাচিনর থাং!
কনাকত তোর মারূপ অয়া আছুগ।